Wednesday , April 7 2021
Home / career / CTET সিলেবাস ও টিপস্

CTET সিলেবাস ও টিপস্

CTET সিলেবাস ও টিপস্

#Paper i/ii

✍️ বছরে ২ বার হয়। মোট ১৫০ নম্বরের পরীক্ষা আর সময়ও ১৫০ মিনিটের। কোন নেগেটিভ মার্কস নেই। এর দুটো পেপার, পেপার-১ ও পেপার-২। পেপার-১ প্রথম শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণী অর্থাৎ প্রাইমারি লেভেল আর পেপার-২ ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে অষ্টম শ্রেণী অর্থাৎ আপার প্রাইমারি লেভেলের জন্য। কিন্তু বাস্তবিকপক্ষে পেপার-১ PRT-র জন্য হলেও পেপার-২ কিন্তু আপার প্রাইমারি থাকলে তার জন্য তো বটেই, প্রধানত TGT-র জন্য। NVS/KVS এ PGT-র জন্য CTET না লাগলেও কোথাও আবার PGT-র জন্যেও পেপার-২ লাগে। তবে NCTE-র সর্বশেষ নির্দেশিকা অনুযায়ী এবার হয়তো PGT-র জন্যেও CTET বাধ্যতামূলক হতে পারে। তাই সবারই CTET দেওয়া উচিত।

#প্যাটার্ন:
পেপার-১ এ প্রথম ৩০ টা(১-৩০) প্রশ্ন চাইল্ড সাইকোলজি থেকে,পরের ৩০ টা(৩১-৬০) অঙ্ক থেকে, পরের ৩০ টা(৬১-৯০) এনভায়রনমেন্টাল স্টাডিজ থেকে,তারপরের ৩০ টা(৯১-১২০) ল্যাঙ্গুয়েজ-১ থেকে এবং শেষ ৩০ টা (১২১-১৫০) ল্যাঙ্গুয়েজ-২ থেকে থাকে।
পেপার -২ এ প্রথম ৩০টা (১-৩০) চাইল্ড সাইকোলজি থেকে, পরের ৬০ টা (৩১-৯০) অঙ্ক ও সায়েন্স(সায়েন্সের স্টুডেন্টদের জন্য) বা সোশ্যাল সায়েন্স(আর্টসের স্টুডেন্টদের জন্য) থেকে,পরের ৩০টা(৯১-১২০) ল্যাঙ্গুয়েজ -১ থেকে এবং শেষ ৩০ টা (১২১-১৫০) ল্যাঙ্গুয়েজ -২ থেকে থাকে। আবার প্রতিটা ভাগে সাব্জেক্ট ছাড়াও তার পেডাগগির প্রশ্নও থাকে।
ল্যাঙ্গুয়েজ-১ ও ল্যাঙ্গুয়েজ-২ বাংলা মাধ্যমের স্টুডেন্টদের সেই বাংলা ও ইংরেজির মধ্য থেকেই বাছতে হবে। এক্ষেত্রে একটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে যে ৯১-১৫০ পর্যন্ত বাংলা এবং একই সংখ্যক ইংরেজির প্রশ্নও থাকে। শুধু ল্যাঙ্গুয়েজ-১ এর সেই প্রশ্নপত্র থেকে ৯১-১২০ এর দাগের প্রশ্নগুলো এবং ল্যাঙ্গুয়েজ-২ এর জন্য তার ১২১-১৫০ দাগের প্রশ্নগুলো করতে হবে। এখানে ভুল করলে চলবেনা। আর বাংলাতে এমন কিছু কিম্ভুতকিমাকার (অরাজনৈতিক) প্রশ্ন থাকে যে বাংলাতে পুরো নম্বর পেতে চাইলে বাংলাকে ল্যাঙ্গুয়েজ-২ হিসেবে নেওয়া যেতে পারে।

Advertisement

#এলিজিবিলিটি-
১.#পেপার-১:
ক) H.S.(৫০% বা ২০০২ এর অর্ডার অনুযায়ী ৪৫% মানে অনেক আগের ক্যান্ডিডেটদের জন্য) + D.El.Ed. বা স্পেশাল D.Ed.
খ) H.S.(৫০%) + ৪ বছরের ইন্টিগ্রেটেড B.El.Ed.
গ) গ্র‍্যাজুয়েশন(৫০%, ওভারঅল) +B.Ed.
B.Ed. /D.Ed.(স্পেশাল) ক্যান্ডিডেটদের PRT হিসেবে চাকরি পাওয়ার পর ২ বছরের মধ্যে এলিমেন্টারি এডুকেশনে আবার ৬ মাসের ব্রিজ কোর্স করা বাধ্যতামূলক।
২. #পেপার-২:
ক) গ্র‍্যাজুয়েশন(নম্বরের বাধ্যবাধকতা নেই)+D.El.Ed.
খ) গ্র‍্যাজুয়েশন(৫০%) + B.Ed.
গ) H.S.(৫০%) + ৪ বছরের ইন্টিগ্রেটেড B.El.Ed.
ঘ) গ্র‍্যাজুয়েশন(৫০%)+ B.Ed.(স্পেশাল এডুকেশন)
স্পেশাল এডুকেশনের ডিগ্রী বা ডিপ্লোমা RCI অনুমোদিত হতে হবে।
অর্থাৎ অনেকেই দুটো পেপারেরই পরীক্ষা দিতে পারে।
প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে ফাইনাল ইয়ার/সেমেস্টারের স্টুডেন্টও পরীক্ষা দিতে পারবে। বয়সের কোন লিমিট নেই। বাংলা অনার্সের স্টুডেন্টও দিতে পারে পরীক্ষা, পেপার-১ পাশ করে PRT হওয়া ছাড়াও পেপার-২ পাশ করে NVS এ TGT বাংলা বিষয়ে শিক্ষকতা করার সুযোগ সছে।
SC/ST/OBC/PH দের ক্ষেত্রে নম্বরে ৫% ছাড় আছে।
সিটেটের প্রিপারেশনের জন্য কম্পিটিটিভ ইংলিশ, বি.এড./ডি.এল.এড-এর চাইল্ড সাইকোলজি পার্ট, ৮-১০ এর অঙ্ক ও সায়েন্স বা সোশ্যাল সায়েন্স (যার যেটা লাগবে) পড়তে হবে। বিগত বছরগুলোর প্রশ্নপত্র অনুশীলনের সঙ্গে সঙ্গে আরিহান্ট বা উপকারস বা দুটো বইই কিনে অনুশীলন করা যেতে পারে।
যেহেতু ১৫০ টা প্রশ্ন এবং কিছু ফর্মালিটিজ, ইংরেজিতে(বাংলার পার্টটা ছাড়া) প্রশ্ন তাও বড় বড় বিবৃতি থাকে তাই ১৫০ মিনিটের এই পরীক্ষায় টাইম ম্যানেজমেন্ট খুবই গুরুত্বপূর্ণ। একই পরীক্ষায় প্রশ্ন বিভিন্ন জোনের থাকে বলে কোন পার্ট আগে করা উচিত আর কোনটা পরে,সেটাও গুরুত্বপূর্ণ। এক্ষেত্রে সবার আগে ফ্রেশ মাইন্ডে চাইল্ড সাইকোলজির পার্টটা করা উচিত যেখানে ৩০ টক প্রশ্নের জন্য ৩০-৩৫ মিনিট দেওয়া যেতে পারে। এরপর অঙ্ক ও এনভায়রনমেন্টাল স্টাডিজ/সায়েন্স/সোশ্যাল সায়েন্স করা যেতে পারে যেখানে ৬০ টা প্রশ্নের জন্য ৪৫-৫০ মিনিটের বেশি টাইম খরচ করা উচিত নয়,যদিও সোশ্যাল সায়েন্সে টাইম কম লাগে। এরপর বাংলা করা উচিত যার জন্য সর্বোচ্চ ২০ মিনিট দেওয়া যেতে পারে। সবশেষে ইংরেজি করাই ভালো। এরপরেও যদি কারুর টাইম ম্যানেজমেন্টে সমস্যা হয় তাহলে আমার ৯০ মিনিটের সিটেটের স্ট্র‍্যাটেজি কেউ ফলো করতে পারে মানে এক্কেবারে শেষে ৪-৫ মিনিট রেখে ইংরেজিরটা B/C যেকোন একটা অপশনে কালোজাম দিয়ে আসতে পারে, তাতেও ৮/৯ এসে যাবে! তবে যে যাইই করুক না কেন প্রতিটা প্রশ্ন করার সঙ্গে সঙ্গে bubble কে কালোজাম খাওয়াবেন নাহলে লাভের গুড়(কালোজাম) সময় খেয়ে নিতে পারে!
১৫০ নম্বরের মধ্যে ৯০ পেলে তাকে কোয়ালিফায়েড বলে ধরা হয় যদিও SC/ST/OBC/PH দের ৫% ছাড় থাকে অর্থাৎ তারা ৮২ পেলেই চলবে।
CTET পাশ করলেই চাকরি নয় এটা কিন্তু PRT বা TGT-র জন্য অত্যাবশ্যকীয় এলিজিবিলিটি। ভিনরাজ্য বা সেন্ট্রালের বিভিন্ন রিক্রুটিং বডি(ডিপার্টমেন্টাল যেমন আর্মি-এয়ার ফোর্স,OFB,AEES সহ),সৈনিক স্কুল প্রভৃতি নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিলে তাতে ফর্ম পূরণ করতে হয় তারপর আবার লিখিত পরীক্ষা হয় যেখানে আবার সাব্জেক্টের প্রশ্নের সাথে সাথে সেই চাইল্ড সাইকোলজি ও পেডাগগি,জিকে,জি আই, অঙ্ক, ইংরেজি,হিন্দীর প্রশ্ন থাকে-এখানেও কোন নেগেটিভ মার্কস নেই। এই লিখিত পরীক্ষা পাশ করলে তারপর ইন্টার্ভিউ ও ডেমো হয়। সেগুলোতে সফল হলে তবেই চাকরি পাওয়া যায়। আবার অনেক বেসরকারি স্কুলও সিটেটকে গুরুত্ব দেয় বা অত্যাবশ্যক এলিজিবিলিটি হিসেবে ধরে।
B. #টার্গেট_KVS_শিক্ষকতা..
সবক্ষেত্রেই পরীক্ষা হবে ১৫০ নম্বরের MCQ type ১৫০ টি প্রশ্ন থাকে। সময় আড়াই ঘন্টা। নেগেটিভ মার্কস নেই।
১. #PGT.
#যোগ্যতা- ৫০% নম্বর সহ পোস্ট গ্র‍্যাজুয়েট ডিগ্রী + B.Ed.
B.Ed. in Special Education রা যোগ্য নন।
কম্পিউটার টিচারদের ক্ষেত্রে ৫০% নম্বর সহ মাস্টার্স বা কম্পিউটারের ব্যাচেলর ডিগ্রী (ইঞ্জিনিয়ারিং বা B.Sc.)। এদের B.Ed. দরকার নেই।
#বয়স- ম্যাক্সিমাম ৪০ বছর, সংরক্ষিতরা নিয়মানুযায়ী বয়সের ছাড় পাবেন।
#পরীক্ষা_প্যাটার্ন –
নম্বর বিভাজন এরকম-
১. ইংরেজি-১০
২. হিন্দী-১০
৩. জেনারেল নলেজ ও কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স -১০
৪. রিজনিং-১০
৫. পেডাগগি-২০
৬. কম্পিউটার-১০
৭. সাব্জেক্ট-৮০
সাব্জেক্টের জন্য আপনি আপনার মহাপান্ডিত্য ছেড়ে Strictly NCERT ১১-১২ বইগুলো খুঁটিয়ে পড়ুন, আর কিছু লাগবে না। এছাড়াও সাব্জেক্টের জন্য পুরানো প্রশ্ন, আর গুপ্তা/আরিহান্ট/উপকারসের বই দেখা যেতে পারে
২. #TGT:
#শিক্ষাগত_যোগ্যতা__
সংশ্লিষ্ট সাব্জেক্টে ৫০% বা সাব্জেক্ট কম্বিনেশনে প্রত্যেকটিতে ৫০% সহ ওভারঅল ৫০% নম্বর নিয়ে গ্র‍্যাজুয়েশন + বি.এড + CTET(পেপার-২)। এখানে বি.এড.ইন স্পেশাল এডুকেশন ডিগ্রিধারীরা অ্যাপ্লাই করতে পারবেন না।
তবে ফিজিক্যাল,হেলথ,ওয়ার্ক, আর্ট এডুকেশন টিচারদের জন্য বি.এড বা CTET বাধ্যতামূলক নয়।
#সাব্জেক্ট_কম্বিনেশন…
১.টিজিটি হিন্দী,সংস্কৃত ও ইংরেজির জন্য ওই সাব্জেক্টে গ্র‍্যাজুয়েশন হলেই চলবে।
২. টিজিটি ম্যাথের ক্ষেত্রে…
ক) ম্যাথ অনার্সের প্রার্থীদের প্রথম দুবছর পাশে ফিজিক্স এবং কেমিস্ট্রি/ইলেকট্রনিক্স/কম্পিউটার সায়েন্স/স্ট্যাটিস্টিকস থাকতে হবে।
খ) ম্যাথ,ফিজিক্স ও কেমিস্ট্রি/ইলেকট্রনিক্স/কম্পিউটার সায়েন্স/স্ট্যাটিস্টিকস নিয়ে গ্র‍্যাজুয়েশন।
গ) আবার ফাইনাল ইয়ারে যাদের ৩ টে বিষয় গ্র‍্যাজুয়েশনে থাকেনা তাদের ফাইনাল ইয়ারে অবশ্যই ম্যাথ ও ফিজিক্স থাকতে হবে এবং প্রথম ২ বছর কেমিস্ট্রি/ইলেকট্রনিক্স/কম্পিউটার সায়েন্স/স্ট্যাটিস্টিকস থাকতে হবে।
ঘ)ফিজিক্স ও কেমিস্ট্রি অনার্স ডিগ্রীধারীরা আবেদন করতে পারবেন না!
৩.টিজিটি সোশ্যাল সায়েন্সের ক্ষেত্রে অনার্স বা সাধারণ গ্র‍্যাজুয়েশন যাইই হোক না কেন তাতে ইতিহাস বা ভূগোলের যেকোন একটি তিনবছর পড়ে থাকতেই হবে এবং সাব্জেক্ট কম্বিনেশনে ইতিহাস বা ভূগোলের একটি অবশ্যই রেখে ইতিহাস,ভূগোল,ইকোনমিক্স ও পলসায়েন্সের মধ্যে আর ১ সাব্জেক্ট নিতে হবে।
৪. টিজিটি সায়েন্সের ক্ষেত্রে কেমিস্ট্রি,বোটানি ও জুওলজি নিয়ে গ্র‍্যাজুয়েশন করতে হবে। এক্ষেত্রে কন্ডিশনগুলো #TGT_Math এর মতোই হবে।
অর্থাৎ কেমিস্ট্রি অনার্সের ক্যান্ডিডেট এই টিজিটি সায়েন্সে অ্যাপ্লাই করতে পারবেন না!
#বয়স..
সাধারণের জন্য সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩৫ বছর। সংরক্ষিতরা নির্দিষ্ট ছাড় পাবেন।
#পরীক্ষা_প্যাটার্ন –
নম্বর বিভাজন এরকম-
১. ইংরেজি-১০
২. হিন্দী-১০
৩. কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স -৪০
৪. রিজনিং-৪০
৫. কম্পিউটার-১০
৬. পেডাগগি-৪০
ফিজিক্যাল,হেলথ,ওয়ার্ক এবং আর্ট এডুকেশনের ক্ষেত্রে পেডাগগির বদলে সাব্জেক্টের ৪০ নম্বরের প্রশ্ন থাকে।
৩। #PRT:
#যোগ্যতা-
ক) H.S.(৫০%) +D.El.Ed
খ) H.S.(৫০%) + ৪ বছরের ইন্টিগ্রেটেড B.El.Ed.
গ) H.S.(৫০%)+D.Ed.(স্পেশাল)
ঘ) গ্র‍্যাজুয়েশন(৫০%)+ B.Ed.
ঙ) PRT মিউজিকের ক্ষেত্রে H.S.(৫০%)+ মিউজিকে গ্র‍্যাজুয়েশন।
হিন্দি এবং ইংরেজিতে পড়ানোর দক্ষতা থাকতে হবে।
#বয়স- সর্বোচ্চ ৩০ বছর, সংরক্ষিতরা ছাড় পাবেন নিয়মানুসারে।
#পরীক্ষা_প্যাটার্ন –
নম্বর বিভাজন এরকম-
১. ইংরেজি-১০
২. হিন্দী-১০
৩. কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স -১০
৪. নিউমেরিক্যাল & রিজনিং-১০
৫. টিচিং মেথডলজি-২০
৬. কম্পিউটার-১০
৭. সাব্জেক্ট-৮০
সাব্জেক্টের মধ্যে জেনারেল সায়েন্স,জেনারেল ম্যাথ ও এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স থাকে। এখানে কিন্তু সায়েন্সের স্টুডেন্টরা বেশি সুবিধা পেতে পারে।
৪. #লাইব্রেরিয়ান-
লাইব্রেরিয়ান পদের জন্য লাইব্রেরি সায়েন্সে ব্যাচেলর ডিগ্রী বা গ্র‍্যাজুয়েশন সহ লাইব্রেরি সায়েন্সে ডিপ্লোমা ডিগ্রি প্রয়োজন। বয়সের উর্ধ্বসীমা- ৩৫ বছর,আসলে পোস্টটা TGT-র সমতুল্য।
#পরীক্ষা_প্যাটার্ন –
নম্বর বিভাজন এরকম-
১. ইংরেজি-১০
২. হিন্দী-১০
৩. কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স -১০
৪. নিউমেরিক্যাল & রিজনিং-১০
৫. কম্পিউটার-১০
৭. সাব্জেক্ট-১০০
#প্রস্তুতি -জেনারেল পার্টের জন্য সিটেট -এর বই, আরিহান্ট,উপকারস, R.Gupta -র বই কাজে দেবে।
হিন্দী নিয়ে বেশি ঘাবড়ানোর কিছু নেই পড়তে জানলে হয়ে যাবে বাংলার মতো। গ্রামার থাকে, বানান সংশোধন থাকে। এই বইগুলো পড়ুন। ইংরেজি ও হিন্দীর জন্য এই বই গুলো ছাড়াও CTET বইটাও কাজে দেবে। আর সব পোস্টের জন্য আলাদাভাবে আরিহান্ট,উপকারস,আর গুপ্তার বই তো আছেই।
তবে PRT-র জন্য এই বইগুলো ছাড়াও #চন্দ্রেশ_আগ্রাওয়াল এর হিন্দী ভার্সানের বইটা কেনা যেতে পারে।
সবক্ষেত্রেই পুরো ১৫০ নম্বর দেখেই ইন্টার্ভিউতে ডাকা হয়।
#ইন্টার্ভিউ – দেশের বিভিন্ন জায়গায় ইন্টার্ভিউ হয়। ইন্টার্ভিউ টা ডেমো কাম ভাইভা টাইপ। বোর্ডে ৪-৫ থাকেন। ক্লাসরুমে হয় কিন্তু স্টুডেন্ট থাকেনা। প্রথমে নিজে একটা টপিক পড়াবেন। ওখানেই প্রশ্ন জিজ্ঞেস করবে। তারপর উনারা বিভিন্ন টপিক পড়াতে বলবেন এবং একইরকমভাবে প্রশ্ন।
ইন্টার্ভিউ ৬০ নম্বরের হয় আর ফাইনাল মেরিট লিস্টের জন্য লিখিত: ইন্টারভিউয়ের ওয়েটেজ হয় ৮৫:১৫.ল।
সাব্জেক্ট ভালো করে জানলে ইংরেজি আর হিন্দী মোটামুটিভাবে জানলে ভয় পাবেন না। সাব্জেক্টটা ফ্লুয়েন্ট পড়াবেন ও উত্তর দেবেন। কনভারসেশন এ ফ্লুয়েন্সি না থাকলে কাটাকাটা উত্তর দেবেন কিন্তু বাড়তি বলতে গিয়ে ট্রাফিক সিগন্যাল খাবেন না।
#নিয়োগ- মেরিট লিস্ট প্রকাশের আগেই হাতে বা ই-মেলে অ্যাপয়েন্টমেন্ট লেটার পেয়ে যাবেন। ২ কপি ক্যারেকটার সার্টিফিকেট,কাস্ট সার্টিফিকেট, মেডিক্যাল অফিসারের কাছে ফিট সার্টিফিকেট, ও অ্যাটেসটেশন ফর্ম পূরণ করে নিয়ে গিয়েই জয়েন করতে পারবেন। পুলিশ ভেরিফিকেশন পরে হয়। লোয়ার স্কেল থেকে পরীক্ষার আগে পারমিশন ও ইন্টার্ভিউ -এর সময় NOC জমা দিলে আর বাকী ফর্মালিটিজ পূরণ করলে লিয়েন ও পাবেন।
ইন্টার্ভিউ এর সময় জোন চয়েস করতে হয়, সেই অনুযায়ী ওরা পোস্টিং দেয়। মহিলারা যতটা সম্ভব বাড়ির কাছাকাছি পোস্টিং পাবেন।
ইন্টার্ভিউ এর সময় জোন চয়েস করতে হয়, সেই অনুযায়ী ওরা পোস্টিং দেয়। মহিলারা যতটা সম্ভব বাড়ির কাছাকাছি পোস্টিং পাবেন।
সুতরাং ইচ্ছে থাকলে এবং চ্যালেঞ্জ নিতে চাইলে সাথে অনেক কিছু নেওয়া ও দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকলে সঠিকভাবে প্রস্তুতি শুরু করে দিন। পরীক্ষায় সময় একটা বড় ফ্যাক্টর,সেইদিকেও নজর দিন। আর ইংরেজিতে প্রশ্ন হলেও সেটা নিয়ে অহেতুক ভয় পাবেন না।

C. #টার্গেট_নভোদয়_শিক্ষকতা….
মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের অধীন ভারতের বৃহত্তম ও সর্বোৎকৃষ্ট আবাসিক স্কুল শৃঙ্খল জওহর নবোদয় বিদ্যালয় যা নবোদয় বিদ্যালয় সমিতি (NVS) নামে এক স্বশাসিত সংস্থার অধীনে। ভারতবর্ষের প্রতিটি রাজ্যের প্রতিটি জেলায় এই বিদ্যালয় স্থাপনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ৬৬০ টি অনুমোদিত বিদ্যালয়ের মধ্যে ৫৮৯ টি চালু রয়েছে। বাকী সব জেলাগুলিতে এই বিদ্যালয় চালুর জন্য ক্যাবিনেট কমিটি (CCEA) ২০১৬ সালে অনুমোদনও দিয়ে দিয়েছে! রাজনৈতিক মদতে Anti Hindi Movement এর জন্য তামিলনাড়ুতে JNV গঠন করা যায়নি। এখানে কিন্তু ইংরেজি ও হিন্দীর পাশাপাশি মাতৃভাষা চর্চারও সুযোগ আছে অর্থাৎ স্কুলগুলো ত্রিভাষা সূত্র মেনে চলে।
JNV,NPE’1986 এর অংশ এবং এই NVS সোসাইটি অ্যাক্ট’১৮৬০ অনুসারে নথিবদ্ধ। এই বিদ্যালয় গঠনের সিংহভাগ কৃতিত্ব তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী মহাশয়ের। বিদ্যালয়গুলি ৮ টি রিজিওনাল অফিসের অন্তর্গত,সেগুলি হ’ল…..
ভূপাল,চণ্ডীগড়, হায়দ্রাবাদ,জয়পুর, লক্ষ্মৌ,পাটনা,পুনে ও শিলং।
এইসব স্কুল একাধারে যেমন কো-এডুকেশন ও আবাসিক ঠিক তেমনি সকল আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপটের স্টুডেন্ট এখানে ফ্রিতে শিক্ষাগ্রহণের পাশাপাশি ফ্রিতেই থাকাখাওয়া সবকিছু পায়। কোয়ালিটি এডুকেশনের পাশাপাশি অলরাউন্ড ডেভেলপমেন্টের সবরকম সুব্যবস্থা রয়েছে।
এইসব স্কুল যেহেতু সম্পূর্ণ আবাসিক তাই টিচারদেরও হোস্টেলেই থাকতে হয়। আকর্ষণীয় কোয়ার্টারে ফ্যামিলি নিয়ে নিশ্চিন্তে থাকা যায়। টিচাররা নিজে এবং দুটো পর্যন্ত সন্তান যারা ওই স্কুলে পড়বে তাদের জন্যও ফ্রিতে fooding এর ব্যবস্থা রয়েছে। তবে এইসব স্কুলে চাকরী করতে গেলে কঠোর পরিশ্রমের মানসিকতা ও শারীরিক সক্ষমতা থাকতে হবে। স্কুলটাইম বাদেও বিকেল, সন্ধ্যায় কোচিং, ভোরের প্যারেড বা হোস্টেলের অতিরিক্ত দায়িত্ব নিতে হবে। আবার সবসময় নিজের ইচ্ছে অনুযায়ী ছুটি নাও মিলতে পারে। তবে ১০% অতিরিক্ত স্যালারি পাবেন এই রেসিডেন্সিয়াল জবের জন্য।
তবে একটা কথা বলা যায়, এইসব স্কুলে শিক্ষকতা করলে আপনার একঘেয়েমি কেটে যাবে এবং মরচে প পড়বেনা বা মরচে পড়ার মানসিকতা উবে যাবে।
#PGT..
#শিক্ষাগত যোগ্যতা…
৫০% নম্বর নিয়ে মাস্টার্স + বি.এড। তবে কম্পিউটার পোস্টের জন্য বি.এড বাধ্যতামূলক নয়।
#বয়স…
সাধারণ প্রার্থীদের জন্য বয়সের উর্দ্ধসীমা ৪০ বছর, সংরক্ষিতরা নির্দিষ্ট ছাড় পাবেন।
#পরীক্ষা_প্যাটার্ন…
৩ ঘন্টায় ১৮০ নম্বরের পরীক্ষা,১৮০ টি MCQ প্রশ্ন।
লিখিত বা CBT হবে ১৮০ নম্বরের। এই ২০১৯ এর ১২ই জুনের পরীক্ষাটা যদিও CBT হয়েছিল। এর মধ্যে…
১. ইংরেজি ও হিন্দী–
১৫ করে ৩০ নম্বরের প্রশ্ন হবে এবং ১/৩ ভাগ অর্থাৎ ৫ করে প্রতিপার্টের কোয়ালিফাইং। এই ৩০ নম্বর কোনমতেই যোগ হবেনা।
২.রিজনিং–১৫
৩.জেনারেল অ্যাওয়ারনেস–১৫
৪.টিচিং অ্যাপ্টিচিউড–২০
৫. সাব্জেক্ট–১০০
অর্থাৎ মোট ১৫০ নম্বরের উপর ভিত্তি করে মেরিট লিস্ট হবে।

#টিজিটি…
#শিক্ষাগত_যোগ্যতা__
সংশ্লিষ্ট সাব্জেক্টে ৫০% বা সাব্জেক্ট কম্বিনেশনে প্রত্যেকটিতে ৫০% সহ ওভারঅল ৫০% নম্বর নিয়ে গ্র‍্যাজুয়েশন + বি.এড + CTET(পেপার-২)।
তবে Art,Music,Librarian ও PET প্রভৃতির জন্য বি.এড বা CTET বাধ্যতামূলক নয়। লাইব্রেরিয়ান দের ক্ষেত্রে লাইব্রেরি সায়েন্সে ডিগ্রী বা গ্র‍্যাজুয়েশন ও লাইব্রেরি সায়েন্সে ডিপ্লোমা।
#সাব্জেক্ট_কম্বিনেশন…
১.টিজিটি হিন্দী ও ইংরেজির জন্য ওই সাব্জেক্টে গ্র‍্যাজুয়েশন হলেই চলবে।
২. টিজিটি ম্যাথের ক্ষেত্রে…
ক) ম্যাথ অনার্সের প্রার্থীদের প্রথম দুবছর পাশে ফিজিক্স এবং কেমিস্ট্রি/ইলেকট্রনিক্স/কম্পিউটার সায়েন্স/স্ট্যাটিস্টিকস থাকতে হবে।
খ) ম্যাথ,ফিজিক্স ও কেমিস্ট্রি/ইলেকট্রনিক্স/কম্পিউটার সায়েন্স/স্ট্যাটিস্টিকস নিয়ে গ্র‍্যাজুয়েশন।
গ) আবার ফাইনাল ইয়ারে যাদের ৩ টে বিষয় গ্র‍্যাজুয়েশনে থাকেনা তাদের ফাইনাল ইয়ারে অবশ্যই ম্যাথ ও ফিজিক্স থাকতে হবে এবং প্রথম ২ বছর কেমিস্ট্রি/ইলেকট্রনিক্স/কম্পিউটার সায়েন্স/স্ট্যাটিস্টিকস থাকতে হবে।
ঘ)ফিজিক্স ও কেমিস্ট্রি অনার্স ডিগ্রীধারীরা আবেদন করতে পারবেন না!
৩.টিজিটি সোশ্যাল সায়েন্সের ক্ষেত্রে অনার্স বা সাধারণ গ্র‍্যাজুয়েশন যাইই হোক না কেন তাতে ইতিহাস বা ভূগোলের যেকোন একটি তিনবছর পড়ে থাকতেই হবে এবং সাব্জেক্ট কম্বিনেশনে ইতিহাস বা ভূগোলের একটি অবশ্যই রেখে ইতিহাস,ভূগোল,ইকোনমিক্স ও পলসায়েন্সের মধ্যে আর ১টা সাব্জেক্ট নিতে হবে।
৪. টিজিটি সায়েন্সের ক্ষেত্রে কেমিস্ট্রি,বোটানি ও জুওলজি নিয়ে গ্র‍্যাজুয়েশন করতে হবে। এক্ষেত্রে কন্ডিশনগুলো #TGT_Math এর মতোই হবে।
অর্থাৎ কেমিস্ট্রি অনার্সের ক্যান্ডিডেট এই টিজিটি সায়েন্সে অ্যাপ্লাই করতে পারবেন না!
#বয়স..
সাধারণের জন্য সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩৫ বছর। সংরক্ষিতরা নির্দিষ্ট ছাড় পাবেন।
#পরীক্ষা_প্যাটার্ন…
৩ ঘন্টায় ১৮০ নম্বরের পরীক্ষা,১৮০ টি MCQ প্রশ্ন।
১. ল্যাঙ্গুয়েজ…
ইংরেজি,হিন্দী ও রিজিওনাল ভাষায় প্রত্যেকটিতে ১৫ নম্বর করে মোট ৪৫ নম্বরের পরীক্ষা। ল্যাঙ্গুয়েজ জাস্ট কোয়ালিফাইং অর্থাৎ প্রতি পার্টে ১/৩ করে মানে ৫ পেতেই হবে। মেধা তালিকার জন্য এই পার্টের নম্বর যোগ হবেনা।
২.রিজনিং– ১০ নম্বর।
৩. জেনারেল অ্যাওয়ারনেস– ১০।
৪.টিচিং অ্যাপ্টিটিউড–১৫।
৫. সাব্জেক্ট–১০০
এই ১৩৫ নম্বরের উপর ভিত্তি করেই মেরিট লিস্ট হবে।

#প্রস্তুতি –
জেনারেল অ্যাওয়ারনেস বাদে ল্যাঙ্গুয়েজ সহ বাকী জেনারেল পার্টের জন্য #সিটেট -এর বই, উপকারসের NVS recruitment part-I,আরিহান্ট,উপকারস, R.Gupta -র বই কাজে দেবে। NVS এর জন্য বইগুলো না পেলে KVS রিক্রুটমেন্টের জন্য বইগুলোও কাজে দেবে। যেহেতু প্যাটার্ন ও স্ট্যান্ডার্ড প্রায় একইরকম।
হিন্দী নিয়ে বেশি ঘাবড়ানোর কিছু নেই পড়তে জানলে হয়ে যাবে বাংলার মতো। গ্রামার থাকে, বানান সংশোধন থাকে। আর উপরোক্ত বইগুলো কনসাল্ট করতে হবে। CTET এর বইয়ের হিন্দি পার্টটা খুব কাজে দেবে।
রিজনিং ও জেনারেল অ্যাওয়ারনেসের জন্য উপরোক্ত বইগুলো ছাড়াও আরিহান্টের আলাদা বই, মাসিক বা পাক্ষিক পত্রিকাগুলো ফলো করবেন।
সাব্জেক্টের জন্য Strictly NCERT এর বইগুলো খুঁটিয়ে পড়ুন, আর কিছু লাগবে না।
বিগত সালের প্রশ্নগুলো তা NVS বা KVS যা পাওয়া যাক না কেন সলভ করতেই হবে এবং যে যে জায়গা থেকে প্রশ্ন এসেছে সেইসব জায়গায় ভালো করে বুৎপত্তি অর্জন করতে হবে

#ইন্টার্ভিউ…
পিজিটি-র জন্য ১৫০ ও টিজিটির জন্য ১৩৫ নম্বরের উপর ভিত্তি কতে ইন্টার্ভিউতে প্রার্থীদের ডাকা হবে।
ইন্টার্ভিউ ওদের নয়ডার হেড অফিসে হয়। গতবারে ৫০ নম্বরের ইন্টার্ভিউ হয়েছিল।
ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতায় দেখেছি ইন্টার্ভিউ বোর্ডে ৫ জন ছিলেন,একটাই বোর্ড। সাব্জেক্ট ছাড়াও MHRD মিনিস্টারের নাম, নভোদয়ের মোটো, নবোদয়ে কাজের প্যাটার্ন সম্বন্ধে অবগত কিনা, হোস্টেলে থেকে(দলে থেকের মতোই) কাজ করতে কোন অসুবিধা হবে কিনা বা পোস্টিং দূরে দিলে অসুবিধা হবে কিনা ইত্যাদি ইত্যাদি সম্বন্ধে জিজ্ঞেস করেছিল। ডেমো না নিলেও একটা টপিক কীভাবে পড়ানো শুরু করবো সেই টপিকটা(হাইব্রিডাইজেশন) দিয়েই বলেছিল। তবে এখন ইন্টার্ভিউয়ের সঙ্গে সঙ্গে বা আগেও অনেকের ডেমো নিয়েছে কেভি স্টাইলে।
ওদের স্কুলে চাকরী করার অভিজ্ঞতা না থাকলে ওরা কোন এক্সপেরিয়েন্স সার্টিফিকেটকে গুরুত্ব দেয়না। আসলে ওতে নম্বর নেই, আছে শুধু দরদ!

#পোস্টিং_ও_নিয়োগ..
লিখিত বা CBT এর নম্বর ও ইন্টার্ভিউ এর নম্বর যোগ করে ফাইনাল মেরিট লিস্ট হয়।
মেরিট লিস্ট প্রকাশের নির্দিষ্ট জোনাল অফিসে ভেরিফিকেশন ও রিপোর্টিং এ যেতে হয়। ইন্টার্ভিউ এর সময় জোন চয়েস করতে হয়। এরপর অ্যাপয়েন্টমেন্ট লেটার এলে ২ কপি ক্যারেকটার সার্টিফিকেট,কাস্ট সার্টিফিকেট, মেডিক্যাল অফিসারের কাছে ফিট সার্টিফিকেট, ও অ্যাটেসটেশন ফর্ম পূরণ করে নিয়ে গিয়েই জয়েন করতে পারবেন। পুলিশ ভেরিফিকেশন পরে হয়। লোয়ার স্কেল থেকে পরীক্ষার আগে পারমিশন ও ইন্টার্ভিউ -এর সময় NOC জমা দিলে আর বাকী ফর্মালিটিজ পূরণ করলে লিয়েন ও পাবেন।
তবে পুরুষ প্রার্থীরা প্রথম পোস্টিং কিন্তু নিজের রাজ্যে পাবেনই না!

#মাধ্যম…
প্রশ্নপত্র শুধুমাত্র হিন্দী ও ইংরেজিতে হবে। তবে রিজিওনাল ল্যাঙ্গুয়েজের প্রশ্ন শুধুমাত্র সেই ভাষাতেই হবে।
#স্যালারী_ও_অন্যান্য_সুবিধা..
১.#পিজিটি,লেভেল-৮,বেসিক-৪৭৬০০/- +DA
#টিজিটি,লেভেল-৭,বেসিক-৪৪৯০০/-+DA
#এখানে PRT পোস্ট নেই, যেখানে আছে তার বেসিক -৩৫৪০০/-+ DA
২.কোয়ার্টারে থাকতেই হবে তাই HRA নেই।
৩. TA পাবেন।
৪. ১০% এক্সট্রা অ্যালাউন্স পাবেন আবাসিকের জন্য।
৫. LTC
৬. ২ টো সন্তান পর্যন্ত ওইস্কুলে পড়াশোনার সুবিধা এবং নিজের ও তাদের ফ্রি ফুডিং।
৭. অন্যস্কুলে পড়ালে কেন্দ্রীয় সরকারের স্কিম অনুযায়ী স্কুল ফিজ ও বুক গ্র‍্যান্ট।
৮. দুর্দান্ত কোয়ার্টার।
#Demerits…
১. বাড়ি থেকে অনেক দূরে পোস্টিং।
২. চাইলেই ছুটি পাবেন না।
৩. প্রায় ২৪ ঘন্টাই অনডিউটি।
৪. এমনও হতে পারে আপনি ও সন্তান ফ্রিতে খাচ্ছেন হোস্টেলে কিন্তু আপনার বেটার হাফের জন্য ওভেন ধর্মঘট করতে পারবে না!
প্রত্যেকটা পোস্টেই ডিপার্টমেন্টাল প্রমোশন আছে যদি শিক্ষাগত যোগ্যতা যথাযথ হয় ,তাছাড়াও MACPS আছে। আর আছে পরীক্ষা দিয়ে উচ্চতর পোস্টে(যেমন প্রিন্সিপ্যাল /ভাইস প্রিন্সিপ্যাল) যাওয়ার সুযোগ।
যাদের স্পাউস চাকরি করেন তারা কিছুদিন পর প্রপার চ্যানেলে অ্যাপ্লাই করলে ১০০ কি.মি.- এর মধ্যে পোস্টিংও পেতে পারেন।

@ Pradip sasmal

Advertisement

Check Also

SIS ইন্টার্ভিউ প্রস্তুতি

SIS ইন্টার্ভিউ প্রস্তুতি লিখিত পরীক্ষার রেজাল্ট এসে গেছে আর ইন্টার্ভিউ-এর দিনক্ষণ ও জেনে গেছে সবাই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *